ঢাকাTuesday , 19 October 2021
  1. অপরাধ
  2. অর্থনীতি
  3. আইন ও ন্যায়
  4. খেলা ধুলা
  5. জীবন যাপন
  6. টাকা বা ডলারের মান হ্রাস বা বৃদ্ধি
  7. ট্রাফিক সার্জেন্টে
  8. ধর্মীয় রীতিনীতি
  9. পার্ক
  10. প্রশাসন
  11. বিনোদন
  12. বিলাসী
  13. বিসিএস
  14. মামলা
  15. মোবাইল ফোন কোম্পনি
আজকের সর্বশেষ সব খবর

লালমনিরহাটে হত্যার মামলা আসামী, ভূমিদস্যু ও কুখ্যাত ডাকাতের ছেলে মোফা নৌকার মাঝি হতে চায়

Link Copied!

লালমনিরহাট সদর উপজেলার রাজপুর ইউনিয়নের নীতিভ্রষ্ট, সুবিধাবাদি, হত্যা মামলার অন্যতম আসামী ও তিস্তা চরাঞ্চলের নিরীহ মানুষের এক আতঙ্কের নাম মোফাজ্জল হোসেন মোফা।

#New_Classic_Event_Management

বর্তমানে তিনি আওয়ামীলীগের রাজনীতির সাথে সংশ্লিষ্ট থাকলেও জেলার কোথাও তার দলীয় কোন পদ নেই। দলীয় কোন পদে না থেকেও টাকার জোড় ও ক্ষমতার দাপটে আ’লীগের দলীয় মনোনয়ন তথা নৌকার টিকিট পেতে ব্রিফকেস ভর্তি টাকা নিয়ে আ”লীগ নেতাদের দাড়ে দাড়ে দৌড়ে বেড়াচ্ছেন এই মোফাজ্জল হোসেন মোফা।

২০০৫ থেকে ২০০৭ সাল পর্যন্ত দেশে রাজনৈতিক অস্থিতিশীলতার সুযোগে রাজপুর চরাঞ্চলে একক আধিপত্য বিস্তার করে নিয়ন্ত্রণ প্রতিষ্ঠার উদ্দেশ্যে ভূমিদস্যুরুপে আবির্ভুত হন কুখ্যাত আব্দুল রহমান ডাকাতের ছেলে মোফাজ্জল হোসেন মোফা।

এসময় এই সুবিধাবাদি হত্যা মামলার অন্যতম আসামী মোফা তিস্তা চরাঞ্চলের কৃষকের শত শত বিঘা আবাদি জমি জোর পূর্বক জবর দখলে নেন। ওই সময় ভুক্তভোগি কৃষকরা প্রতিবাদ করলে মোফা ও তার লাঠিয়াল বাহিনী কৃষকদের মারধর ও গুরুতর আহত করে চর থেকে বিতারিত করে দেয়।

এর পরেও আর বিরুদ্ধে কেউ প্রতিবাদ করলে তাকে শায়েস্তা করার উদ্দেশ্যে অসংখ্য মিথ্যা ও বানোয়াট মামলা দিয়ে হয়রানি করেন। তার ওই মিথ্যা মামলায় ওই সময় অনেকে কারাবাসও করেন। উল্লেখ্য রাজপুর ইউনিয়নে হিন্দু সম্প্রদায়ের বসবাস বেশি। ইউনিয়নটি হিন্দু অধ্যষিত হওয়ায় তার অত্যাচারে অনেক অসহায় পরিবার এলাকা ছেড়ে যেতে বাধ্য হয়।

এ সংক্রান্ত ঘটনার সংবাদ প্রকাশ করায় ওই সময় সংশ্লিষ্ট সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে মামলা দিয়ে হয়রানি করা হয়। ওই সময় ঘটনার বিবরণ দিয়ে দৈনিক জনকন্ঠ, প্রথম আলো, ইত্তেফাক, দ্য ডেইলি স্টার, আজকের কাগজ, যায় যায় দিন, দৈনিক সংবাদ, সমকাল, মৃদুভাষণ ও স্থানীয় সাপ্তাহিক লালমনিরহাট বার্তাসহ আঞ্চলিক ও জাতীয় দৈনিকে সচিত্র প্রতিবেদন ও সম্পাদকীয় প্রকাশ হয়। টিভি চ্যানেল এটিএন বাংলায় “আশে পাশের মানুষ” এবং” বিবেকের কাছে প্রশ্ন” অনুষ্ঠানে প্রচারিত হয় রাজপুর চরের জমি জবর দখলের ঘটনার শিকার ক্ষতিগ্রস্থ কৃষকদের প্রকৃত ঘটনা। ওই আন্দোলনে একাত্বতা ঘোষণা করে দেশের কয়েকজন বিশিষ্ট ব্যক্তিত্ব বিবৃতি প্রদানও করেন। এতদসংক্রান্ত সংবাদ প্রকাশ হওয়ার পর কৃষকদের দখলকৃত জমি উদ্ধারে রাজপুর চর পরির্শনে আসেন ওই সময়ের তত্ববধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা সুলতানা কামাল ,একশন এইডের কান্ট্রি ডিরেক্টর ফারাহ কবির, মানবাধিকার কর্মী খুশী কবীর, ড. অজয় রায়. ড. ডেনিশ দিলীপ দত্ত প্রমুখ। তার এই সমস্ত ঘটনার বিবরণ দিয়ে ওই সময় প্রকাশিত হয় “রক্তাক্ত রাজপুর” নামে ভূমি জবর দখলের প্রামান্য দলিল (সিডি ও বই)।

মোফাজ্জল হোসেন মোফা, নিজের স্বার্থ চরিতার্থ করতে লালমনিরহাট জেলা বিএনপির সভাপতি ও সাবেক উপমন্ত্রী অধ্যক্ষ আসাদুল হাবিব দুলুর সাথে হাতে হাত মিলিয়ে তার দলবল নিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে ২০১১ সালে বিএনপিতে যোগদান করেন। দুলুর আশির্বাদ ও সমর্থনে ওই সময় নির্বাচিত হন রাজপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান।

দীর্ঘ সময় মোফাজ্জল হোসেন মোফা ও তার পোষ্যবাহিনী দিয়ে রাজপুর ইউনিয়নের শত শত নিরীহ মানুষকে হয়রানি, জমি জবর দখলসহ মিথ্যা মামলা দিয়ে তাদের জীবন দুর্বিসহ করে তোলেন। পরবর্তিতে আ”লীগ সরকার ক্ষমতায় আসলে ২০১৫ সালে সুভিধাবাদী মোফা আওয়ামী লীগে যোগ দিয়ে নৌকা বাগিয়ে নিয়ে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন।

এর পরেই মোফা আরো হিংস্র হয়ে উঠেন এবং নিজেই জমি দখল করতে গিয়ে নিরীহ এক কৃষককে পেটে চাকু ঢুকিয়ে হত্যা করেন। তার চলার পথে কেউ সামনে পড়লে তাকে নতজানু হয়ে সম্মান করতে হয়। তা নাহলে তার পেটোয়া বাহিনী সেই ব্যক্তিকে পিটিয়ে হাত-পা ভেঙ্গে দেন। রাজপুর ইউনিয়নের নিরীহ মানুষের আতঙ্ক, নীতিভ্রষ্ট ও সুবিধাবাদি মোফাজ্জল হোসেন মোফা বর্তমানে আওয়ামীলীগের রাজনীতির সাথে সংশ্লিষ্ট থাকলেও জেলার কোথাও তার দলীয় কোন পদ নেই। দলীয় কোন পদে না থেকেও আ’লীগের দলীয় মনোনয়ন তথা নৌকার টিকিট পাওয়ার চেষ্টায় ব্রিফকেস ভর্তি টাকা নিয়ে আ”লীগ নেতাদের দাড়ে দাড়ে ঘুরে বেড়াচ্ছেন।

মোফাজবজল হোসেন মোফার বাবা মৃত আব্দুল রহমান এক সময় রাজপুর ইউনিয়নের এই তিস্তা চরাঞ্চলে দুর্ধর্ষ একজন ডাকাত দলের সর্দার ছিল। যার ভয়ে গোটা রংপুর অঞ্চলের লোকজনকে আতঙ্কে রাত জেগে থাকতে হতো। বর্তমানে তার ছেলে মোফার ভয়ে থাকতে হচ্ছে।

উক্ত মোফার বিরুদ্ধে খুনের মামলাসহ তার অপকর্মের প্রায় ২৫/৩০টি মামলা রয়েছে। উক্ত মোফা একটি মামলায় বিজ্ঞ জজ আদালত কর্তৃক (এক) মাসের কারাদন্ডে দন্ডিত আসামী, যাহার মামলা নং (জিআর -২৪৭/০৭)। তার বিরুদ্ধে বিভিন্ন সময় লালমনিরহাট সদর থানায় কয়েক ডজন সাধারণ ডায়েরী রয়েছে।

তার এইসব অফকর্মের বিষয়ে জানতে চাইলে মোফাজ্জল হোসেন মোফা জানান, তার বিরুদ্ধে আনিত হত্যা মামলা মিথ্যা ও ভিত্তিহীন। তাই তার বিরুদ্ধে যে হত্যা মামলা দায়ের হয়েছিল সেই মামলার চার্জ সিট থেকে তিনি মুক্তি পেয়েছেন। এবারেও এই রাজপুর ইউনিয়ন থেকে আ”লীগের প্রার্থী হিসেবে তাকেই নৌকার মাঝির দায়িত্ব দিবেন বলে তিনি সাংবাদিকদের জানান।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Shares

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো। বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।

প্রযুক্তি সহায়তায়: মুশান্না কম্পিউটার আইটি