ঢাকাFriday , 30 July 2021
  1. অপরাধ
  2. অর্থনীতি
  3. আইন ও ন্যায়
  4. খেলা ধুলা
  5. জীবন যাপন
  6. টাকা বা ডলারের মান হ্রাস বা বৃদ্ধি
  7. ট্রাফিক সার্জেন্টে
  8. ধর্মীয় রীতিনীতি
  9. পার্ক
  10. প্রশাসন
  11. বিনোদন
  12. বিলাসী
  13. বিসিএস
  14. মামলা
  15. মোবাইল ফোন কোম্পনি
আজকের সর্বশেষ সব খবর

প্রাইমারি শিক্ষক নেশায় আসক্ত: স্থানীয়দের স্বাক্ষর করা গনপিটিশনে দায়ের

Link Copied!

লালমনিরহাটের হাতীবান্ধায় সহকারি শিক্ষক শাহিন তার ভাই সজিব ও জুয়েলের বিরুদ্ধে মাদক সেবনের অভিযোগ পাওয়া গেছে।

#New_Classic_Event_Management

আর এ ঘটনায় গত বুধবার (২৮ জুলাই) উপজেলার ভেলাগুড়ি ইউনিয়নের স্থানীয়রা পোষ্ট অফিসের (ডাক যোগাযোগ) মাধ্যমে ওই তিনজনের নাম উল্লেখ করে বিভিন্ন দপ্তরে লিখিত অভিযোগ ও গণ পিটিশন দিয়েছেন।

দপ্তর গুলো হলো, লালমনিরহাট জেলা প্রশাসক (ডিসি), জেলা পুলিশ সুপার (এসপি), জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার, হাতীবান্ধা থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হাতীবান্ধা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও), উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার, ও ভেলাগুড়ি ইউপি চেয়ারম্যান।

আব্দুস সাত্তার শাহিন উপজেলার ভেলাগুড়ি ইউনিয়নের মধ্যম কাদমা এলাকার মৃত শাহাজান চাকলাদারের ছেলে ও মাস্টার পাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষক। শাহিনের ভাই সজিব এবং মৃত আঃ রহিমের ছেলে জুয়েল।

স্থানীয়দের স্বাক্ষর করা গনপিটিশনে উল্লেখ রয়েছে, সহকারী শিক্ষক শাহিন, তার ভাই সজিব ও জুয়েল এলাকায় সকল ধরনের অপরাধের সাথে জড়িত। এছাড়া তারা ইয়াবা, গাঁজাসহ বিভিন্ন নেশার সাথে জড়িত। ওই তিনজনের কারনে এলাকার উঠতি বয়সের ছেলেরা নষ্ট হওয়ার পথে। এমনকি নিজেরদের পরিবারের লোকজনদেরও জমি দখল করে। তাদের কারনে এলাকার সকল বয়সের মানুষ ভয়ে থাকেন।

এ বিষয়ে গনপিটিশনে স্বাক্ষকরকারী স্থানীয় হাফিজুর রহমান বলেন, ওই তিন জনের উপর অতিষ্ট এলাকাবাসী। শিক্ষক হয়ে সব সময় নেশা ডুবে থাকে। এমনকি তরুন যুবকদের নেশায় আসক্ত করে জীবন নষ্ট করে দিচ্ছে। আমরা এর বিচারের দাবীতে বিভিন্ন দপ্তরে লিখিত অবিযোগ দিয়েছি।

গনপিটিশনে স্বাক্ষকরকারী অপর একজন স্থানীয় মনোয়ারা খাতুন বলেন, একজন শিক্ষকের কাছে আমাদের সন্তানরা শিক্ষা পাবে সু-পথে চলবে৷ কিন্ত এই শিক্ষক তো তরুনদের জীবন নষ্ট করে দিচ্ছে। এছাড়া এলাকাবাসী ওই শিক্ষকসহ সজিব, জুয়েলের উপর অতিষ্ট।

এ বিষয়ে মাস্টার পাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষক আব্দুস সাত্তার শাহিন বলেন, আমি নেশা করি না। ব্যস্ত আছি, পরে কথা বলবো।

এ বিষয়ে মাস্টার পাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক খগেশ্বর বলেন, লোক মুখে শুনেছি। তবে নিজের চোখে দেখি নাই।

এ বিষয়ে হাতীবান্ধা উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা (অতিরিক্ত দ্বায়িত্বপ্রাপ্ত) জাকির হোসাইন সরকার বলেন, অভিযোগ এখনো পাওয়া যায়নি। অভিযোগ পেলে তদন্ত করে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

এ বিষয়ে হাতীবান্ধা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এরশাদুল আলম বলেন, এ সংক্রান কোন অভিযোগ এখনো পাইনি। অভিযোগ পেলে তদন্ত করে ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

এ বিষয়ে হাতীবান্ধা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সামিউল আমিন বলেন, এরকম কোন অভিযোগ এখনো পাইনি, অভিযোগটি পেলে তদন্ত করে আমাদের যেটা করনীয় সেটাই করবো।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Shares

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো। বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।

প্রযুক্তি সহায়তায়: মুশান্না কম্পিউটার আইটি