ঢাকাSunday , 10 October 2021
  1. অপরাধ
  2. অর্থনীতি
  3. আইন ও ন্যায়
  4. খেলা ধুলা
  5. জীবন যাপন
  6. টাকা বা ডলারের মান হ্রাস বা বৃদ্ধি
  7. ট্রাফিক সার্জেন্টে
  8. ধর্মীয় রীতিনীতি
  9. পার্ক
  10. প্রশাসন
  11. বিনোদন
  12. বিলাসী
  13. বিসিএস
  14. মামলা
  15. মোবাইল ফোন কোম্পনি
আজকের সর্বশেষ সব খবর

দোহার ও নবাবগঞ্জ উপজেলার কানেক্টিভিটি উদ্বোধন করলেন সালমান ফজলুল রহমান

Link Copied!

ঢাকার নবাবগঞ্জ উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে আইসিটি উদ্যোক্তাগণের সাথে মতবিনিময় সভা ও ইনফো-সরকার (৩য় পর্যায়) প্রকল্পে নবাবগঞ্জ ও দোহার উপজেলার ২২টি ইউনিয়নের কানেক্টিভিটি উদ্বোধন করা হয়েছে।

#New_Classic_Event_Management

গত শনিবার দুপুরে নবাবগন্জ উপজেলার ওয়াসেক মিলনায়তনে আইসিটি উদ্যোক্তাদের সাথে মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান।

এ সময় সালমান এফ রহমান বলেন,
প্রধানমন্ত্রী জননেএী শেখ হাসিনার সুদক্ষ নেতৃত্বে বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে। ২০০৯ সালে যখন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ডিজিটাল বাংলাদেশ ঘোষনা দিয়ে ছিলো তখন বিএনপি জামায়াত হাসাহাসি করে বলেছিলো কিভাবে দেশ এগিয়ে যাওয়া সম্ভব। আজ ২০২১ সাল শেখ হাসিনার কঠোর পরিশ্রমে স্বয়ংসম্পূর্ণ ডিজিটাল বাংলাদেশে পরিনত হয়েছে।
উপদেষ্টা আরো বলেন, ২০০৯ সালে যখন আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসে তখন দেশের মানুষের মাথাপিছু আয় ছিল মাত্র ৪৫০ ডলার। কিন্ত এখন মাথাপিছু আয় ২২২৭ ডলার। যা সম্ভব হয়েছে প্রধানমন্ত্রীর অক্লান্ত পরিশ্রমে। উন্নত দেশ গঠনে প্রধানমন্ত্রী দিনরাত পরিশ্রম করে যাচ্ছে।

ঢাকা জেলা প্রশাসক মো. শহীদুল ইসলাম এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানের বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক এমপি।
এ সময় জুনাইদ আহমেদ বলেন, ৭৫ এর পরবর্তী সময়ে ২১ বছর বঙ্গবন্ধুর খুনিরা এই দেশে শাসনের নামে শোষন করেছে, তাদের সময়ে কেন বাংলাদেশের উন্নয়ন হলো না। কিন্ত মাত্র ১২ বছরের মধ্যে তিনটি ম্যাজিকের কারনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশকে দরিদ্র রাষ্ট্র থেকে ডিজিটাল রাষ্ট্রে পরিণত করেছেন। এই তিনটি ম্যাজিক হলো, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সততা, দ্বিতীয় কারন জননেত্রী শেখ হাসিনার সাহসীকতা ও তৃতীয় কারন প্রধানমন্ত্রীর দূরদর্শীতা। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সৎ, সাহসী ও দূরদর্শী। এ কারনে বাংলাদেশ এত দ্রুত এত উন্নত হয়েছে।

প্রতিমন্ত্রী আরো বলেন, প্রযুক্তিতে জ্ঞানচর্চার জন্য স্কুল কলেজের ছেলে মেয়েদের জন্য বাংলাদেশে ৮ হাজার ডিজিটাল কম্পিউটার ল্যাব পৌছে দিয়েছে সরকার। দেশে ৩৯টি হাইটেক পার্কের কাজ হাতে নিয়েছে সরকার। নবাবগঞ্জ উপজেলায় শেখ কামাল আইটি ট্রেনিং সেন্টার বিষয়ে আশ্বাস দিয়ে তিনি বলেন ২০২৩ সালে তা দৃশ্যমান হবে ইনশাল্লাহ।আপনারা সৌভাগ্যবান। আপনাদের এমপি সালমান এফ রহমান প্রধানমন্ত্রীর সিপাহশালার। ২০২১ সাল বিশ্বে বাংলাদেশ স্মরণীয় হয়ে থাকবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তার দূরদর্শিতায় ১২ বছরের মধ্যে দেশাটাকে বিশ্বের দরবারে উচুঁ পর্যাদায় পৌঁছে দিয়েছে।এ সময় মন্ত্রী উদ্যোক্তাদের বিভিন্ন সমস্যার কথা মনোযোগসহ শুনেন এবং তা সমাধানেরও আশ্বাস দেন।

এর আগে মন্ত্রী নবাবগঞ্জ -দোহার সীমান্তবর্তী মাঝিরকান্দায় শেখ কামাল আইটি পার্ক এর জন্য প্রস্তাবিত জমি ও হাইটেক পার্ক স্থাপনের জন্য স্থান পরিদর্শন করেন ।

পরে বিকেলে সালমান এফ রহমান যন্ত্রাইল ইউনিয়নে টেকনিক্যাল স্কুল এন্ড কলেজের ভিত্তি প্রস্তর উদ্বোধন করেন। এ ছাড়াও নবাবগঞ্জ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের নবনির্মিত ভবন উদ্বোধন করেন।

সন্ধ্যার পরে সালমান এফ রহমান দোহার উপজেলা পরিষদের ডরমিটরি উদ্বোধন করেন। এ ছাড়া পরিষদের সভা কক্ষে নবাবগঞ্জ ও দোহারের বর্জ্য ব্যবস্থাপনা নিয়ে মতবিনিময় সভা করেন।
এ সময়,আলোচনায় উঠে এসেছে অযাচিতভাবে দোহার নবাবগঞ্জ উপজেলায় নদীতে, খালে, রাস্তার পাশে ময়লা আবর্জনার অব্যবস্থাপনার কথা। এতে তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করে প্রয়োজনীয় পরামর্শ দেন সালমান এফ রহমান। এ সময় তিনি বলেন, এই বর্জ্য ব্যবস্থাপনা জন্য ইউনিয়ন পর্যায় ড্যাম্পিং ব্যবস্থা থাকতে হবে। যাদের বাসায় ময়লা থাকবে তারা ৫০ টাকা দিবে আর এই টাকা ইউনিয়ন পর্যায় খরচ করবে শ্রমিকের বেতন হিসাবে। আর যারা রাস্তায় ময়লা ফেলবে তাদের বিরুদ্ধে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
নবাবগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এইচ এম সালাউদ্দীন মনজুর সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষ তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ ব্যবস্থাপনা পরিচালক (অতিরিক্তি সচিব) বিকর্ণ কুমার ঘোষ, অতিরিক্ত সচিব আজিজুল ইসলাম,ঢাকা জেলা অতিরিক্ত পুলিশ সুপার হুমায়ুন কবির, কেন্দ্রীয় স্বেচ্ছাসেকলীগের সভাপতি নির্মল রঞ্জন গুহ, নবাবগঞ্জ উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান নাসির উদ্দিন আহমেদ ঝিলু, দোহার উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মো. আলমগীর হোসেন।

উপস্থিত ছিলেন, ঢাকা জেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক পনিরুজ্জামান তরুণ, নবাবগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগের আহবায়ক মিজানুর রহমান কিসমত, দোহার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এ, এ, এম ফিরোজ মাহমুদ, উপজেলা সহকারী কমিশনার ভূমি ফজলে রাব্বি বাপ্পী, নবাবগঞ্জ উপজেলা সহকারী কমিশনার ভূমি অরুন কৃষ্ণ পাল, দোহার থানার ওসি মোস্তফা কামাল ও নবাবগঞ্জ থানার ওসি সিরাজুল ইসলাম শেখ প্রমুখ।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Shares

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো। বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।

প্রযুক্তি সহায়তায়: মুশান্না কম্পিউটার আইটি