ঢাকাSaturday , 29 May 2021
  1. অপরাধ
  2. অর্থনীতি
  3. আইন ও ন্যায়
  4. খেলা ধুলা
  5. জীবন যাপন
  6. টাকা বা ডলারের মান হ্রাস বা বৃদ্ধি
  7. ট্রাফিক সার্জেন্টে
  8. ধর্মীয় রীতিনীতি
  9. পার্ক
  10. প্রশাসন
  11. বিনোদন
  12. বিলাসী
  13. বিসিএস
  14. মামলা
  15. মোবাইল ফোন কোম্পনি
আজকের সর্বশেষ সব খবর

চলন্ত বাসে দলবদ্ধ ধর্ষণের ঘটনায় ৬ জনকে রিমান্ডে চায় পুলিশ

Link Copied!

আল-ইমরান, (ঢাকা প্রতিনিধি) সাভারের আশুলিয়ায় চলন্ত বাসে এক নারী শ্রমিককে দলবদ্ধ ধর্ষণের ঘটনায় ছয়জনের সাত দিনের রিমান্ড আবেদন করেছে পুলিশ। শনিবার দুপুরে তাদের আদালতে পাঠানো হয়েছে।

#New_Classic_Event_Management

ভুক্তভোগী ওই নারী শ্রমিককে উদ্ধার করে স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে পাঠানো হয়েছে।

শনিবার দুপুরে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ঢাকার জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ উত্তর) আব্দুল্লা হিল কাফি।

এর আগে শুক্রবার ১২টার দিকে ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের বিশ মাইল এলাকার ডি.সি নার্সারির সামনে ব্যারিকেড দিয়ে ধর্ষকদের গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

এ ঘটনায় নির্যাতিতা নারী শ্রমিক বাদী হয়ে আশুলিয়া থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন- ঢাকার তুরাগ থানার গুলবাগ ইন্দ্রপুর ভাসমান গ্রামের নজরুল ইসলামের ছেলে আরিয়ান (১৮), কুষ্টিয়া জেলার দৌলতপুর থানার তারাগুনা এলাকার মৃত আতিয়ারের ছেলে সাজু (২০), বগুড়া জেলার ধুনট থানার খাটিয়ামারি এলাকার সুলতান মিয়ার ছেলে সুমন (২৪), নারায়ণগঞ্জ জেলার বন্দর থানার ধামঘর এলাকার জহুর উদ্দিনের ছেলে মনোয়ার (২৪), বগুড়ার ধুনট থানার খাটিয়ামারি এলাকার তোফাজ্জল হোসেনের ছেলে সোহাগ (২৫) ও দুপচাঁচিয়া থানার জিয়ানগর গ্রামের সামছুলের ছেলে সাইফুল ইসলাম (৪০)।

গ্রেপ্তারকৃতরা সবাই তুরাগ থানার কামারপারা ভাসমান এলাকায় ভাড়া থেকে আব্দুল্লাহপুর-বাইপাইল-নবীনগর মহাসড়কে মিনিবাস চালাতেন।

থানা পুলিশ ও মামলার এজাহার থেকে জানা গেছে, নির্যাতিতা নারী শ্রমিক শুক্রবার দুপুরে নারায়ণগঞ্জের চাষাঢ়া থেকে মানিকগঞ্জে বোনের বাসায় বেড়াতে যান। সেখান থেকে সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে নিজ বাসা নারায়ণগঞ্জের উদ্দেশে একটি বাসে উঠলে রাত ৮টার দিকে তাকে আশুলিয়ার নবীনগর বাসস্ট্যান্ডে নামিয়ে দেওয়া হয়।

পরে অন্য বাসের জন্য অপেক্ষার একপর্যায়ে তার পূর্ব পরিচিত এক ব্যক্তির সঙ্গে দেখা হয়। রাত ৯টার দিকে নিউ গ্রামবাংলা পরিবহনের মিনিবাসে করে টঙ্গী স্টেশন রোডে যাওয়ার জন্য বাসটিতে ওঠেন। এ সময় বাসের হেলপার মনোয়ার ও সুপারভাইজার সাইফুল ইসলাম তাদের কাছে ৩৫ টাকা করে ভাড়া লাগবে বলে জানান।

এ ঘটনায় ওই নারী শ্রমিক তার পরিচিত লোকটিকে নিয়ে টঙ্গী যাওয়ার আগেই বিভিন্ন স্থানে অন্য যাত্রীদের নামিয়ে দেওয়া হয়। পরে বাসটি টঙ্গী না গিয়ে আশুলিয়া বাজার এলাকা থেকে ইউটার্ন নেয় এবং রাস্তা থেকে তাদের পরিচিত আরও চার ব্যক্তিকে বাসে ওঠায়।

এ সময় ওই নারী শ্রমিকের সঙ্গে থাকা ব্যক্তি বিষয়টির প্রতিবাদ করলে তাকে বেধড়ক মারধর করে বাসের মধ্যে বেঁধে রাখা হয়।

একপর্যায়ে মিনিবাসের দরজা-জানালা বন্ধ করে দিয়ে আশুলিয়ার গরুরহাট এলাকা থেকেই চলন্ত বাসে ওই নারীর ওপর পালাক্রমে পাশবিক নির্যাতন চালাতে থাকে। বিষয়টি রাস্তার টহলরত পুলিশের নজরে আসলে তারা গাড়িটি ধাওয়া করে।

গাড়িটি দ্রুত গতিতে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে সাভার হাইওয়ে থানা পুলিশের সহযোগিতায় আশুলিয়ার বিশ মাইল এলাকায় ব্যারিকেড দিয়ে আটক করা হয়।

পরে গাড়ির ভেতর থেকে নির্যাতিতা নারী শ্রমিক ও তার সঙ্গে থাকা নাজমুলকে উদ্ধারসহ এ ঘটনায় জড়িত ছয়ৱ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়। মিনিবাসটিও জব্দ করা হয়।

সাভার হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সাজ্জাদ করিম জানান, মহাসড়কের চলাচলকারী একটি মিনিবাসের ভেতর থেকে হঠাৎ এক নারী চিৎকার করলে আমাদের মোবাইল টিমের সদস্যরা গাড়িটি (ঢাকা মেট্রো-জ-১১-১৬৪৮) আটক করে। পরে ওই নারীর কাছ থেকে ধর্ষণের বিষয়টি জানতে পেরে ঘটনার সঙ্গে জড়িত সাতজনকে গ্রেপ্তার করে আশুলিয়া থানায় সোপর্দ করা হয়।

জানতে চাইলে ঢাকা জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ উত্তর) আব্দুল্লা হিল কাফি জানান, অভিযুক্ত ছয়জনের বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

তিনি বলেন, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেপ্তারকৃতরা ধর্ষণের বিষয়টি স্বীকার করায় শনিবার দুপুরে সাত দিনের পুলিশ রিমান্ড চেয়ে আদালতে পাঠানো হয়েছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Shares

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো। বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।

প্রযুক্তি সহায়তায়: মুশান্না কম্পিউটার আইটি